রোহিঙ্গা মুসলমানরা মিয়ানমারের অধিবাসী নয়- সেনাপ্রধান

প্রতিবেদক:

মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং বলেছেন রোহিঙ্গা মুসলমানরা মিয়ানমারের অধিবাসী নয়। একই সঙ্গে তিনি বলেছেন, দেশটি থেকে পালানো রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সংখ্যাও গণমাধ্যমে অতিরঞ্জিতভাবে তুলে ধরা হয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত স্কট মার্সিয়েলের সঙ্গে বৈঠক শেষে ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে দেওয়া এক পোস্টে মিয়ানমারের সেনাপ্রধান এ মন্তব্য করেছেন।

আজ বৃহস্পতিবার চ্যানেল নিউজ এশিয়ার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়েছে।
মিয়ানমারের সেনাপ্রধান বলেছেন, রোহিঙ্গারা মুসলিমরা ঔপনিবেশিক আমল থেকেই ‘বাঙালি’। ব্রিটিশ উপনিবেশবাদীরাই আজকের রোহিঙ্গা সমস্যার জন্য দায়ী বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। রোহিঙ্গা বাঙালিদের মিয়ানমার সে দেশে নিয়ে যায়নি। উপনিবেশবাদীদের কারণেই রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে।
মিন অং বলেন, ‘তারা মিয়ানমারের অধিবাসী নয়। নথিপত্রই প্রমাণ করে তারা ঔপনিবেশিক আমল থেকেই বাঙালি।’
গত বুধবার জাতিসংঘের মানবাধিকার দপ্তর বলেছে, মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীর দমন-পীড়নের শিকার হয়ে প্রায় পাঁচ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।
বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের মধ্যে ৬৫ জনের সাক্ষাৎকার নিয়েছে জাতিসংঘের অধিকার দপ্তর। তারা বলছে, গত ২৫ আগস্ট হামলার আগেও রোহিঙ্গারা ধর্ষণ, হত্যা ও নির্যাতনের শিকার হয়েছে।
গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নিরাপত্তা বাহিনীর তল্লাশি চৌকিতে হামলার জেরে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। দেশটির সেনাবাহিনী রোহিঙ্গা মুসলমানদের জাতিগতভাবে নিধন করতে অভিযান শুরু করে। পুড়িয়ে দেওয়া হয় রোহিঙ্গাদের গ্রাম। সেনাবাহিনীর সহিংসতার শিকার হয়ে প্রায় পাঁচ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়।

Comments

comments