ব্রেকিং নিউজ

খ্যাতিমান চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

tareque-masud-thebdexpress

দ্য বিডি এক্সপ্রেস ডটকমঃ
বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে বিশ্বের দরবারে পৌছে দেয়ার জন্য যারা নিরলসভাবে কাজ করেছেন তারেক মাসুদ তাদের অন্যতম। চলচ্চিত্রের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন বিষয়কে সারা বিশ্বে তুলে ধরেছিলেন তিনি,তার আকস্মিক মৃত্যুতে চলচ্চিত্রের আকাশে নেমে আসে অন্ধকার। তারেক মাসুদ চলচ্চিত্র সংক্রান্ত কার্যক্রমের সাথে যুক্ত হন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন সময় থেকে। তিনি চলচ্চিত্র আন্দোলনের সাথে সক্রিয়ভাবে যুক্ত ছিলেন। চলচ্চিত্র নির্মান সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে তিনি দেশে বিদেশে অনেকগুলো কোর্স সম্পন্ন করেন। ১৯৮২ সালে তিনি শিল্পী এস এম সুলতানের উপর ডকিউমেন্টারী আদম সুরত নির্মান শুরু করেন। আদম সুরত মুক্তি পায় ১৯৮৯ সালে। এর আগে অবশ্য ১৯৮৭ সালে সোনার বেড়ী নামে বাংলাদেশের নির্যাতিত নারীদের উপর তিনি ২৫ মিনিট স্থায়ীত্বের একটি তথ্যচিত্র নির্মান করেন। ১৯৯২ সালে স্ত্রী ক্যাথেরিন মাসুদের সাথে যৌথভাবে তারেক একটি অ্যানিমেশন শর্ট ফিল্ম নির্মান করেন যার দৈর্ঘ্য মাত্র তিন মিনিট। তারেক মাসুদ মুক্তির গান চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বাংলা চলচ্চিত্রের দর্শকদের কাছে ব্যাপকমাত্রায় পরিচিতি লাভ করেন। মুক্তিযুদ্ধের সময়কার দুর্লভ কিছু ফুটেজ থেকে মুক্তির গান চলচ্চিত্রটি নির্মান করেন তারেক মাসুদ। ২০০২ সালে মাটির ময়না চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে বিশ্বের দরবারে পৌছে দিতে ভূমিকা পালন করেন তারেক। বাংলাদেশের প্রথম চলচ্চিত্র হিসেবে অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডস এর বিদেশী মুভির ক্যাটাগরীতে প্রতিযোগিতা করে এই চলচ্চিত্রটি।

চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী আজ শনিবার। দুর্ঘটনার পর পাঁচ বছর পার হলেও এখনও শেষ হয় এ মামলার বিচার প্রক্রিয়া।২০১১ সালের ১৩ আগস্ট ‘কাগজের ফুল’ এর লোকেশন দেখে ঢাকায় ফেরার পথে মাকিগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন নিহত হন।

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার ইছামতি নদীর তীর ঘেঁষে শেখ একিম উদ্দিনের বাড়ী। এই বাড়িতেই তারেক মাসুদ তার পরবর্তী সিনেমা ‘কাগজের ফুল’ এর চিত্রায়ন করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কাজটি আর করা হলো না। বাড়িটি আজো তেমনভাবেই আছে। শুধু বেঁচে নেই স্বপ্নদ্রষ্টা।

দিনটি উপলক্ষে সকাল ১০টার দিকে সড়কের পাশে তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরের নামে স্থাপিত স্মৃতি স্তম্ভে মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ফুলেল শ্রদ্ধা জ্ঞাপন, আলোচনা সভা ও মানববন্ধনের আয়োজন করবে।

প্রসঙ্গত, ২০১১ সালের এই দিনে মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার শালজানা গ্রামে কাগজের ফুল ছবির স্যুটিং স্পট দেখে ঢাকা ফেরার পথে বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে প্রচণ্ড বৃষ্টির মধ্যে তারেক মাসুদ- মিশুক মুনীরকে বহনকারী মাইক্রোবাসের সঙ্গে বিপরীতমুখী চুয়াডাঙ্গাগামী চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্স পরিবহনের একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

এতে ঘটনাস্থলেই তারেক মাসুদ, মিশুক মুনীর, মাইক্রোবাস চালক মোস্তাফিজুর রহমান, প্রোডাকশন সহকারী মোতাহার হোসেন ওয়াসিম ও জামাল হোসেন নিহত হন। এ দুর্ঘটনায় তারেক মাসুদের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ, শিল্পী ঢালী আল-মামুন ও তার স্ত্রী দিলারা বেগম জলি এবং তারেক মাসুদের সহকারী মনীশ রফিক আহত হন।

আজ সেই খ্যাতিসম্পন্ন চলচ্চিত্র নির্মাতা তারেক মাসুদের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী বৃহস্পতিবার। দিনটি উপলক্ষে ফরিদপুরে তার গ্রামের বাড়িতে তারেক মাসুদ মেমোরিয়াল ট্রাস্ট দিনটি বিশেষভাবে পালন করবে। এ জন্য দিনব্যাপী কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে।বুধবার সংবাদমাধ্যমে পাঠানো তারেক মাসুদ মেমোরিয়াল ট্রাস্টের যোগাযোগ সমন্বয়ক আফতাব হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। কর্মসূচির মধ্যে থাকছে তরুণ প্রজন্মের অনুপ্রেরণা হিসেবে তারেক মাসুদের জীবন ও কর্মের প্রতি সম্মান প্রদর্শন এবং তার নির্মিত চলচ্চিত্র প্রদর্শনী।তারেক মাসুদের গ্রামের বাড়ি ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার নুরপুর গ্রামে সকাল ১০টায় তার সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে শুরু হবে দিনের আয়োজন।
তারেক মাসুদ মেমোরিয়াল ট্রাস্টের চেয়ারপার্সন ক্যাথরিন মাসুদ, মানবাধিকার কর্মী খুশি কবীর, শিল্পী ঢালি আল মামুন ও দিলারা জলি, স্থানীয় সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, শিক্ষাবিদ এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে আলোচনা অনুষ্ঠান ও স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হবে বিকেল ৩টায়।সন্ধ্যা ৭টায় প্রদর্শিত হবে তারেক মাসুদ নির্মিত ‘রানওয়ে’ চলচ্চিত্র নির্মাণের গল্প নিয়ে তৈরি ‘স্মৃতিকথায় রানওয়ে’ এবং তারেক মাসুদের পরিচালনায় শিল্পী এস এম সুলতানের ওপর নির্মিত প্রামাণ্য চলচ্চিত্র ‘আদম সুরত’।
এছাড়া সকাল ১১টায় নগরকান্দা গ্রামের জয়বাংলা মোড়ে উদ্বোধন করা হবে তারেক মাসুদের স্মরণে নির্মিত তারেক মাসুদ স্মারক ভাস্কর্য।ভাস্কর্যটি উদ্বোধন করবেন তারেক মাসুদের মা নুরুন নাহার, সংসদ সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এবং অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন ক্যাথরিন মাসুদ।

 

Comments

comments