ব্রেকিং নিউজ

শরিয়া মেনেই সমকামী জুলহাজ-তনয়কে হত্যা করা হয়েছে: আল কায়েদা

rupban

দ্য বিডি এক্সপ্রেস ডটকমঃ

আল-কায়েদার বাংলাদেশ শাখা আনসার আল ইসলাম দাবি করেছে, তারা যেসব হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে থাকেন তার সবই সংঘটিত হয় ইসলামি শরিয়ার বিধান মেনে। দুই পৃষ্ঠায় প্রকাশিত এক বিবৃতিতে ইউএসএইডের কর্মকর্তা জুলহাজ মান্নান ও নাট্যকর্মী মাহবুব তনয়ের হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে এ কথা বলেন তারা। সমকামিতাকে গ্রহণযোগ্য করে তোলার চেষ্টারত গণমাধ্যমগুলোকেও হুমকি দিয়েছে আনসার আল ইসলাম। বিবৃতিতে তারা ইসলিামিক স্টেট (আইএস) সম্পর্কে জানিয়েছে, বাগদাদি ঘোষিত খেলাফতকে স্বীকৃতি কিংবা তাদের কর্মকাণ্ডকে সমর্থন না দিলেও সংগঠনটির সব কর্মকাণ্ডকে তারা অবৈধ মনে করে না।  

উল্লেখ্য, জুলহাজ মান্নান ও মাহবুব তনয়কে কুপিয়ে হত্যার পর এর দায় স্বীকার করে টুইট করে আনসার আল ইসলাম। আল কায়েদার ভারতীয় উপমহাদেশ শাখার মুখপাত্র মুফতি আবদুল্লাহ আশরাফের পক্ষ থেকে দায় স্বীকার করে টুইটে বলা হয়, ‘আলহামদুলিল্লাহ! আল্লাহ তা’আলার অনুগ্রহে আনসার আল ইসলাম এর দুঃসাহসী মুজাহিদিনরা বাংলাদেশে সমকামী প্রসারের পথিকৃৎ, সমকামীদের গুপ্ত সংগঠন ‘রূপবান’- এর পরিচালক জুলহাজ মান্নান ও তার সহযোগী সামির মাহবুব তনয়কে হত্যা করেছেন। ক্রুসেডার আমেরিকা ও তার ভারতীয় মিত্রদের সাহায্য নিয়ে ১৯৯৮ সাল থেকে এই ভূখণ্ডের অধিবাসীদের মধ্যে সমকামিতার মতো জঘণ্য অশ্লীলতা ছড়িয়ে দিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছিলেন এই বেতনভোগী ভৃত্যদ্বয়।

’বিবৃতিতে জুলহাজ-তনয় হত্যার প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে আনসার আল ইসলাম দাবি করে শরিয়ার বিধানের বাইরে কোনও হত্যাকাণ্ড ঘটান না তারা। বিবৃতিতে বলা হয়, ‘কোনও মুসলিমের রক্তপাত ঘটানো শরিয়া অনুযায়ী বড় পাপ। আর সেকারণে ভুল করেও যেন কোনও মুসলিমের রক্তপাত না হয় সে ব্যাপারে আমাদেরকে অত্যন্ত সাবধান হওয়া প্রয়োজন। অনেক বছর ধরে এদেশে অনেক ব্যক্তি ও সংগঠন মুসলিমদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। এসব ব্যক্তি ও সংগঠনের ওপর প্রথমে হামলা চালিয়ে মুসলিমদের জাগিয়ে তোলাটাই সর্বোৎকৃষ্ট পন্থা।

’গত মাসের শেষের দিকে রাজধানীর কলাবাগানের বাসায় ঢুকে জুলহাজ মান্নান ও মাহবুব তনয়কে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। নিহত জুলহাজ বাংলাদেশে প্রকাশিত প্রথম সমকামীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার পত্রিকা ‘রূপবান’ এর সম্পাদক ছিলেন। তনয় ছিলেন লোকনাট্য দলের নাট্যকর্মী ও রূপবানের কর্মী।বাংলা ট্রিবিউন

Comments

comments