ব্রেকিং নিউজ

আজ ছুটির দিন ছিল বইপ্রেমীদের উপচে পড়া ভিড়

boi1-thebdexpress

আবু বকর ইয়ামিন

শুরুর দিন থেকেই বাঙালির প্রাণের মেলা অমর একুশে গ্রন্থমেলায় দর্শনার্থীর ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। এর ওপর আজ শুক্রবার ছুটির দিন হওয়াতে ভিড়ের মাত্রা বেড়েছে কয়েকগুণ। ছুটির দিনটিতে অমর একুশে গ্রন্থমেলায় ছিল বইপ্রেমীদের উপচে পড়া ভিড়। সকাল থেকেই মেলা প্রাঙ্গণে বাড়তে থাকে ভিড়, দুপুর গড়িয়ে বিকেল হতেই তা রুপ নেয় জনসমুদ্রে। আর সন্ধ্যায় পুরো মেলা প্রাঙ্গণ জুড়ে যেন তিল ধারণের ঠাঁই নেই।   

দর্শনার্থীদের দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে মূল ফটকের সামনেও রীতিমতো ধাক্কা ধাক্কি করে পাড়ি দিতে হয়েছে প্রবেশ পথ। আর একই চিত্র ছিল প্রতিটি স্টলের সামনে। সেখানেও ছিল বইপ্রেমীদের ভিড় আর জটলা। বিশেষ করে তাম্রলিপি, অন্যপ্রকাশ, সময়, কাকলী, প্রথমা, পাঞ্জেরি, ইউনিভার্সিটি প্রকাশনী ও বাংলা একাডেমি স্টলসহ উল্লেখযোগ্য কিছু স্টলে ছিল দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়। প্রিয় লেখকের বই খুঁজে পেতে ঘাম ঝড়াতে হয়েছে পাঠকদের।     

সরেজমিনে দেখা যায়, আজকের মেলা কেবল সোহরাওয়ার্দী উদ্যান কিংবা বাংলা একাডেমীর ভেতরই সীমাবদ্ধ ছিল না। মেলার ভিড় টিএসসি, দোয়েল চত্বর, কার্জন হল, শহীদ মিনার পর্যন্ত বিস্তৃত হতে দেখা গেছে। নিরাপত্তা দিতেও অনেকটা হিমশিম খেতে হয়েছে নিরাপত্তাকর্মীদের। এতো ভিড়ের মাঝে সবদিক সামাল রাখা একটু বেশিই কষ্ট হয়ে গেছে বলে জানান দায়িত্বরত পুলিশ কামরুল।

ছুটির দিন হওয়াতে সকাল ১১টায় মেলার প্রবেশ দ্বার খুলে দেওয়া হয়। ওই সময়টা যেন ছিল শুধু শিশু-কিশোরদের জন্য। পুরো মেলা প্রাঙ্গন জুড়ে দাপিয়ে বেড়িয়েছে তারা। তবে দুপুর পার হতেই ছোটদের পাশাপাশি তরুণ-তরুণী, যুগলসহ সব বয়সী নারী পুরুষের ভিড় বাড়তে থাকে মেলা প্রাঙ্গণে। সন্ধ্যার আগে আগেই মেলায় ঠাঁই নাই ঠাঁই নাই অবস্থা।

প্রথমা প্রকাশনীর লিপি জানান, প্রতিদি্নই প্রচুর দর্শনার্থী আসে। বিক্রিও হয়। তবে প্রতি ছুটির দিনেই একটু বেশি ভীড় হয় বেচাবিক্রিতো হয়ই।  

অন্যপ্রকাশের শিশির জানান, আমাদে্র প্রকাশনীর বিশেষ আকর্ষণ হুমায়ূন আহমেদ। এছাড়া অন্যান্য জনপ্রিয় লেখকদের বইও পাওয়া যায় আমাদের স্টলে। প্রতিদিনই ভিড় থাকে। তবে ছুটি দিনগুলোতে সামাল দেওয়া খুব কষ্ট হয়ে যায়।

রাজধানীর মহাখালী থেকে মেলায় আসা সরকারি চাকরিজীবী জোনায়েদ আহমেদ জানান, আজ সরকারি ছুটি থাকায় স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে মেলায় এসেছি। এবারের মেলা বিস্তৃত করায় বেশ ভালো লাগছে। বাচ্চাদের জন্য কিছু বই কিনেছি। আরো কিনবো।

আরেক চাকুরিজীবী রেহানা সুলতানা জানান, কাজের জন্য সময় পাই না। আজ ছুটির দিনে বাবুদের নিয়ে মেলায় চলে আসলাম। মুহাম্মদ জাফর ইকবালের ক্রেনিয়েল, আনিসুল হকের বাগানবাড়ীর রহস্য ও হুমায়ূন আহমেদের কিশোর রচনাসমগ্র ও মানবী নিয়েছি।এছাড়া মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক কিছু বই কিনবো।

Comments

comments