ব্রেকিং নিউজ

বিনা দরপত্রে ৫ গ্যাস ব্লক ইজারার প্রস্তাব অনুমোদন

gas-thebdexpress

দ্য বিডি এক্সপ্রেস.কম।।

টেন্ডার ছাড়াই সমঝোতার ভিত্তিতে সমুদ্রের পাঁচটি গ্যাস ব্লক ইজারা দিচ্ছে সরকার। বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দ্রুত সরবরাহ বৃদ্ধি (বিশেষ বিধান) আইনের আওতায় এ কাজ দেয়া হবে। বিনা দরপত্রে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিভাগের অনেক প্রকল্পের কাজ দেয়া হলেও গ্যাস ব্লক ইজারা এটিই প্রথম। গত বৃহস্পতিবার  এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব অনুমোদন করেন প্রধানমন্ত্রী, যিনি বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রীও। 

গভীর সমুদ্রের ৫টি ব্লক হলো : ১০, ১১ , ১২, ১৬ ও ২১ নম্বর। এগুলো উৎপাদন বণ্টন চুক্তির (পিএসসি) আওতায় দরপত্রের মাধ্যমে একবার ইজারা দেয়া হয়েছিল। দুটি ব্লক ১০ ও ১১ পেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক কোম্পানি কনোকো-ফিলিপস । আর  ১২, ১৬ ও ২১ নম্বর ব্লক পেয়েছিল যৌথভাবে কনোকো-ফিলিপস  ও স্টেট অয়েল। কোম্পানিগুলো ব্লকগুলোতে জরিপ কাজ করে গ্যাস থাকার সম্ভাবনার কথা জানায়। কিন্তু গ্যাসের দাম বৃদ্ধিসহ নানান সুবিধা নিয়ে সরকারের সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় তারা ব্লকগুলো ছেড়ে দেয়।

এদিকে দরপত্র ছাড়াই কাজ দেয়ার যুক্তি হিসেবে জ্বালানি বিভাগ বলছে, দরপত্রের মাধ্যমে কাজ দিতে বেশি সময় অপচয় হয় বলেই সমঝোতার মাধ্যমে কাজ দেয়া হচ্ছে।

জ্বালানি বিভাগের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘বিশেষ আইনে তো এ সুযোগ (সমঝোতা) রয়েছে। বিদ্যুৎ খাতে এ আইনের প্রয়োগে সুফলও পাওয়া গেছে। আশা করছি আমরাও সফল হবো।’

এদিকে দরপত্র ছাড়াই কাজ দেয়ার যুক্তি হিসেবে জ্বালানি বিভাগ বলছে, দরপত্রের মাধ্যমে কাজ দিতে বেশি সময় অপচয় হয় বলেই সমঝোতার মাধ্যমে কাজ দেয়া হচ্ছে।

জ্বালানি বিভাগের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘বিশেষ আইনে তো এ সুযোগ (সমঝোতা) রয়েছে। বিদ্যুৎ খাতে এ আইনের প্রয়োগে সুফলও পাওয়া গেছে। আশা করছি আমরাও সফল হবো।’

তবে জ্বালানি বিশেষজ্ঞদের মতে এ প্রক্রিয়া দুর্নীতিকে উৎসাহিত করবে। সরাকরি কর্মকর্তা বা রাজনৈতিক ব্যক্তিদের পছন্দের কোম্পানিকে কাজ দেয়ারও তোড়জোড় শুরু হবে।’

জ্বালানি বিভাগের তথ্য মতে, বর্তমানে দেশে ৭টি উৎপাদন বণ্টন চুক্তির (পিএসসি) আওতায় ৫টি বিদেশি কোম্পানি ৮টি ব্লকে কাজ করছে। এর মধ্যে স্থলভাগের জন্য তিনটি পিএসসি ও সমুদ্রের ব্লকের জন্য ৪টি পিএসসি স্বাক্ষর হয়েছে।

স্থলভাগের ১২ (বিবিয়ানা), ১৩ ও ১৪ (জালালাবাদ ও মৌরভীবাজার) ব্লকে যুক্তরাষ্ট্রের শেভরন এবং ৯ নম্বর (বাঙ্গুরা) ব্লকে তাল্লো ও কৃস এনার্জি এবং সমুদ্রের ১৬ নম্বর ব্লকে (মাগনামা) সান্তোস কাজ করছে।
আর অগভীর সমুদ্রের ১১ ব্লক সান্তোস ও ক্রিস এনার্জি এবং ৪ ও ৯ নম্বর ব্লক ভারতীয় দুই কোম্পানি ওএনজিসি ভিদেশ লিমিটেড (ওভিএল) ও অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেড (ওআইএল) ইজারা নিয়েছে।

Comments

comments