ব্রেকিং নিউজ

অভাবনীয় ছাড়ে জমে উঠেছে বাণিজ্য মেলা

Commerce-fairপ্রতিবেদকঃ  নগদ ছাড়, পণ্যের সাথে পণ্য ফ্রি অফারে জমে উঠেছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা।

মেলার শেষ মুহুর্তে ক্রেতা দর্শনার্থীর ভিড় বেড়েছে। ফলে এই ক্রেতা আকর্ষণে বিক্রেতারাও পিছিয়ে নেই। তারাও শেষ সময় উপলক্ষে স্বাভাবিক ছাড়ের পাশাপাশি দাম আরো কমিয়ে দিয়েছে। কেউ কেউ পণ্যের দাম অর্ধেকেরও বেশি মূল্য কমিয়ে দিয়েছে। পাশাপাশি একটি পণ্য কিনলে সাথে ১০ থেকে ২০টি পণ্য ফ্রি দিচ্ছে।

মেলায় দেশের ইলেকট্রনিকস, ইলেকট্রিক্যাল ও অটোমোবাইলস পণ্যের শীর্ষস্থানীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটন মোবাইল ফোনসহ অন্য সব পণ্যে ২ থেকে ২০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে।

এর মধ্যে মোবাইল ফোনে রয়েছে ২ থেকে ২০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। আর হোম অ্যাপ্লায়েন্স, মোটর সাইকেল, এসি টিভিতে নির্ধারিত মূল্য থেকে সাত শতাংশ ছাড় দিচ্ছে।

এছাড়া গ্রামীণ ফোন স্টার গ্রাহকরা মোবাইল ফোনে পাঁচ শতাংশ এবং অন্যান্য পণ্যে ১০ শতাংশ ছাড় পাচ্ছেন।

হস্তশিল্পের প্যাভিলিয়ন শতরঞ্জিতে পাওয়া যাচ্ছে, বিভিন্ন পাপোশ, ল্যাম্পশেড, তোয়ালেসহ হাতে তৈরি বিভিন্ন পণ্য। এখানে একটি কিনলে দুটি, চারটি কিনলে ছয়টি ফ্রি পাওয়া যাচ্ছে।

মেলায় দেশীয় ব্র্যান্ড স্মার্টেক্স প্যাভিলিয়নে পাওয়া যাচ্ছে, ছেলেদের টি-শার্ট, গেঞ্জি, শার্ট, প্যান্ট, থ্রি কোয়াটার প্যান্ট, পাঞ্জাবি, ফতুয়াসহ আরো অনেক কিছু। মেয়েদের থ্রি-পিস, শাড়ী, প্যান্ট, টি-শার্টসহ বিভিন্ন ধরনের লেহেঙ্গা।

সব পোশাকে ৭০ শতাংশ ছাড় দিচ্ছে। এর আগে তারা ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিয়েছিল। এখন শেষ মুহুর্তে ৭০ শতাংশ ছাড় দেওয়ার পর ক্রেতা সমাগম বেড়েছে।

মেলায় রাবেয়া ফ্যাশন ব্লেজারের দাম থেকে ১ হাজার ৮০০ টাকা  থেকে কমিয়ে ১ হাজার ২৫০ টাকা এবং ২ হাজার টাকা থেকে কমিয়ে ১ হাজার ৪৫০ টাকা করেছে।

যারা এখান থেকে কার্ড নিয়ে যাবেন বাইরে থেকে তাদের ফ্যাক্টরি থেকে ব্লেজার বানালে অর্ধেক ছাড় পাবেন। অর্থাৎ যেখানে নেওয়া হতো তিন হাজার টাকা ছাড় দিয়ে এতে নেওয়া হবে দেড় হাজার টাকা। এখানে ব্লেজার ছাড়াও পাওয়া যাচ্ছে, কোট এবং শেরওয়ানি।

মেলার ফ্যাশন ওয়ানের স্টলে গিয়ে দেখা যায়, এখানে দেশি এবং ভারতীয় থ্রি-পিসের সমাহার। পাওয়া যাচ্ছে সাধারণ থ্রি-পিস, লোন থ্রি-পিস, আনস্টিচ থ্রি-পিস। তিন সেট প্রিন্টের থ্রি-পিস বিক্রি হচ্ছে ৯৯৯ টাকায়। যা মেলা শুরুর সময় ছিলো ১ হাজার ২০০ টাকা। তাতের তিন সেট থ্রি-পিছ দেওয়া হচ্ছে ১ হাজার ৫০ থেকে কমিয়ে ৮৯৯ টাকায়। কাজ করা তিন সেট থ্রি-পিস দেওয়া হচ্ছে তিন হাজার থেকে কমিয়ে ২ হাজার ১৯৯ টাকায়।

বিক্রেতারা জানান, পুরো মাস তেমন বিক্রি হয়নি। ফলে শেষ মুহুর্তে বিক্রি বাড়াতে স্বাভাবিক ছাড়ের পরও আরো বেশি ছাড় দিচ্ছি।

 

Comments

comments