ব্রেকিং নিউজ

বিদ্যমান সংকট নিরসনে গণতান্ত্রিক সংবিধান প্রয়োজন

দ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ বর্তমান সংবিধানকে অবিকৃত রেখে গণতান্ত্রিক রাজনীতি ও রাষ্ট্র কখনই সম্ভব নয়। তাই দেশের বিদ্যমান সংকট নিরসনে মুক্তিযুদ্ধের আকাঙ্ক্ষার ভিত্তিতে গণতান্ত্রিক সংবিধান প্রয়োজন।
শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে গণতান্ত্রিক সংবিধান সংগ্রাম কমিটি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। সভার মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি।
অধ্যাপক আহমেদ কামালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন গণতান্ত্রিক সংবিধান সংগ্রাম কমিটির সংগঠক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম, লেখক ও কবি শহীদুল্লাহ ফরায়েজী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, অধ্যাপক আবুল কাশেম, মুক্তিযোদ্ধা মনিবুর রহমান প্রমুখ।
জোনায়েদ সাকি বলেন, বিএনপি বা আওয়ামী লীগ উভয় দলই নিজেদের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতায় আসার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে। তারা জনগণের জন্য কী করতে পারে সেটা এখন প্রশ্ন নয় বরং আমাদের সামনে নতুন রাজনৈতিক বাস্তবতা কী সেটাই প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে।
তিনি বলেন, সংবিধানে জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার সুরক্ষার বদলে তাকে সীমিত করার সাংবিধানিক ব্যবস্থা করা হয়েছে। বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে সরকার বিষয়টি নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার উপায় হিসেবে। আর বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য তাদের আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে। রাজনৈতিক সংকট নিয়ে কোন পক্ষেরই চিন্তা নেই।
আহমেদ কামাল বলেন, আমাদের রাষ্ট্রের গোড়াতেই আসলে সমস্যা রয়েছে। যে সংবিধান দিয়ে রাষ্ট্র চলছে তা কোনভাবেই যুগোপযোগী নয়। সংবিধানে ক্ষমতাকে এক ব্যক্তির হাতে কেন্দ্রীভূত করে রাখা হয়েছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে প্রয়োজন যুগোপযোগী সংবিধান প্রণয়ন।
অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম বলেন, সংবিধান যে জনগণের জীবন ধারণের দলিল আমাদের দেশে সেটা মানা হয় না। বাহাত্তরের সংবিধানে জনগণের অধিকার নিশ্চিতের একটা ঘাটতি রয়ে গেছে। সংবিধানকে সংরক্ষণ করে যে ক্ষমতা প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে সেটা জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার বিপক্ষে।

Comments

comments