ব্রেকিং নিউজ

গার্মেন্টস কর্মীদের বঞ্চনা নিয়ে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’

1422bn.thumbnailদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ নাচের মুদ্রায়, কোরিওগ্রাফির ভঙ্গিমায় আমাদের গার্মেন্টস শ্রমিকদের বঞ্চনা, কষ্ট, সংগ্রাম এবং স্বপ্নের কথা উঠে এসেছে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ প্রামাণ্য নৃত্য প্রযোজনায়।
ইউরোপে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় প্রতিটি পোশাকের দোকানেই বাংলাদেশের পোশাক। ট্যাগে লেখা থাকে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’। বাংলাদেশের গার্মেন্টস শ্রমিকদের পরিশ্রমে এই পোশাক তৈরি হয়, বিশ্বের ফ্যাশন বাজারে তা ক্রেতাদের মন রাঙায়। সেই শ্রমিকদের তো কমদামে শ্রম বিক্রি করে অর্থকষ্টে দিন কাটানোর জীবন। যেন নিজেকে পুড়িয়ে আলো ছড়ানোর কাজ তাদের।
জার্মান নির্দেশক হেলেনা ওয়াল্ডম্যানের জার্মান-বাংলাদেশি প্রযোজনা ‘মেড ইন্ বাংলাদেশ’ এবার প্রথমবারের মত ঢাকায় মঞ্চস্থ হবে আজ সোমবার বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায়। জার্মানি, লুক্সেমবার্গ ও সুইজারল্যান্ডের ১১টি শহরে এবং ভারতের ৪টি শহরে সফলভাবে মঞ্চস্থ করে এবার যেন নিজের ঘরে ফিরে এসেছে ‘মেড ইন্ বাংলাদেশ’। নৃত্য বিন্যাসে হেলেনাকে সহায়তা করেছেন কলকাতার কত্থক নৃত্যশিল্পী বিক্রম আইয়েঙ্গর। বাংলাদেশে সহায়তায় রয়েছে জার্মান সাংস্কৃতিক কেন্দ্র গ্যেটে ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ এবং উপমহাদেশীয় সংস্কৃতি প্রসার কেন্দ্র-সাধনা।
এ প্রসঙ্গে সাধনার সাধারণ সম্পাদক, শৈল্পিক নির্দেশক ও নৃত্যশিল্পী লুবনা মারিয়াম বলেন, এই নৃত্যনাট্যটি খুবই আধুনিক আঙ্গিকে উপস্থাপিত হচ্ছে। হেলেনা ওয়াল্ডম্যান মূলত নাট্য নির্দেশক। কিন্তু তিনি কত্থকের দ্রুত শরীরীশৈলীকে অবলম্বন করে প্রযোজনাকে নির্মাণ করেছেন। তিনি এ প্রযোজনার মাধ্যমে, গার্মেন্টস শ্রমিকদের কষ্ট, বঞ্চনার কথা তুলে ধরেছেন, একইভাবে নৃত্যশিল্পীদের কষ্ট, বঞ্চনার বিষয়টিকেও এর সঙ্গে যুক্ত করেছেন। সামগ্রিকভাবে যারা কায়িক শ্রমের মাধ্যমে আয় করে তাদের প্রতি অবহেলাকে তুলে ধরে সমাজকে সচেতন করতে চেয়েছেন।
লুবনা মারিয়াম আরো বলেন, বাংলাদেশের মঞ্চে এটি খুবই আধুনিক একটি প্রযোজনা। যা আমাদের নৃত্যশিল্পীদের প্রথাগত নাচের ধারা থেকে বেরিয়ে এসে সমাজ ঘনিষ্ঠ কাজ করার দিকে নিয়ে থাকে। মূলত এর সঙ্গে যুক্ত থেকে আমরাও নতুন নৃত্যধারাকে আয়ত্ত করার চেষ্টা করছি।
আজ সোমবার পর পর দুবার নৃত্যনাট্যটি মঞ্চস্থ হবে প্রথমে দুপুর ২টা এবং পরে সন্ধ্যা ৭টায়। দুটি উপস্থাপনাই সবার জন্য উন্মুক্ত। তবে আগে এলে আগে প্রবেশের সুযোগ মিলবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, সম্মানিত অতিথি থাকবেন সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, জার্মান দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স ড. ফারডিনান্দ ফন ভেইহে ও রণজিত্ বিশ্বাস।
জার্মান শহর লুড্উইগ্সহাফেনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর প্রযোজনাটি ২ মাস ধরে সফর করে বিভিন্ন দেশে। গত এক বছর ধরে ঢাকাতেই চলেছে গবেষণা, নির্মাণ পরিকল্পনা ও মহড়া। ১২ জন বাংলাদেশি নৃত্যশিল্পীর অতি নিপুণ ও দক্ষ নৃত্য পরিবেশনার সাথে আরও ব্যবহূত হয়েছে আন্না সৌপের চলচ্চিত্র এবং হান্স নার্ভা’র সৃজনশীল সাউন্ড ট্র্যাক। এর নৃত্যশিল্পীরা হলেন মুনমুন আহমেদ, শাম্মি আক্তার, শারীন ফেরদৌস, মাসুম হোসেন, ঊমী আইরিন, মেলা লামিয়া, তৃনা মেহনাজ, হানিফ মোহম্মদ, টুমটুমি নুজাবা, বিশ্বজিত্ সরকার, শোমা শার্মীন ও লাবণ্য সুলতানা।

Comments

comments