ব্রেকিং নিউজ

নিজের বক্তব্য থেকে সরে আসলেন অর্থমন্ত্রী

63626প্রতিবেদকঃ ১২ ঘণ্টা যেতে না যেতেই নিজের বক্তব্য থেকে সরে আসলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। অর্থমন্ত্রী আজ সোমবার সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অনুষ্ঠানে বলেন, সরকার তার পূর্বের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে এসেছে। তিনি বলেন, ফের এক ও দু টাকার নোট ও ধাতব মুদ্রা বাজারে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এর আগে গত রবিবার তিনি বলেছিলেন, এক ও দুই টাকার নোট ও ধাতব মুদ্রাগুলো ব্যাংকে পৌঁছানোর পর সেগুলো আর বাজারে ফিরে আসবেনা। তবে গতকাল রাতেই বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে বলা হয়েছিল যে এক ও দুই টাকার নোট বাজারে থাকবে এবং যতদিন চাহিদা থাকবে ঠিক ততদিনই এগুলো বাজারে থাকবে। অর্থমন্ত্রী বলেন, এক ও দুই টাকার নোট এখনই উঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে না। বাজারে যেসব নোট রয়েছে সেগুলো চলতে থাকবে। এটি একটি প্রক্রিয়া। যখন সবকিছুর মূল্য পাঁচ টাকা এবং ১০ টাকায় চলে আসবে তখনই এক ও দুই টাকার নোট তুলে দেওয়া হবে।

ভাঙতি দেয়া নেয়া নেয় প্রশ্ন করা হলে আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, যখন এটা কর্যকর হবে। তখন এক বা দুই টাকার ভাঙতির প্রয়োজন হবে না। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়(বিএসএসইউ) এর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্তের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জাতীয় অধ্যাপক ড. শাহেলা খাতুন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের(বিএমএ) মহাসচিব ডা. ইকবাল আর্সলান প্রমুখ।

সচিবালয়ে রবিবার (১৯ জানুয়ারি’২০১৫) দুপুরে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান, অর্থসচিব মাহবুব আহমেদ, এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমানসহ অর্থ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ভ্যাট আইন সংশোধন নিয়ে বৈঠক করেন অর্থমন্ত্রী। বৈঠকের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী জানান, সর্বনিম্ন মুদ্রা হবে ৫ টাকা।

বাজারে প্রচলিত এক টাকা ও দুই টাকার মুদ্রা ও কাগুজে টাকার প্রচলন থাকবে না। প্রচলিত এই মুদ্রা বাজার থেকে উঠিয়ে নিতে প্রায় তিনশ কোটি টাকা লাগবে জানিয়ে তিনি বলেন, এই মুদ্রা ও কাগুজে টাকা উঠিয়ে নেওয়ার পর পাঁচ টাকার নতুন নোট চালু করা হবে।

Comments

comments