ব্রেকিং নিউজ

বাণিজ্য মেলায় কেনাকাটার পাশাপাশি মিলছে ফ্রি চিকিৎসা

1421242909১৬,জানুয়ারি,শিশুকে নির্দিষ্ট সময় পরপর দুধ পান করানো, শিশুর নির্ধারিত খাবার খাওয়ানো বা শিশুর শরীরের কাপড় পরিবর্তন; কোনো মা নিশ্চয়ই এড়াতে পারেন না। আর সেজন্য কেনাকাটা বা ঘোরাঘুরির ইচ্ছে থাকলেও শিশুকে বাসায় রেখে মেলায় আসতে চান না অনেক মায়েরা। তবে এবারের মেলায় শিশুকে সাথে নিয়ে এসে ভোগান্তিতে পরতে হচ্ছে না তার মাকে। শিশুকে দুধ পান করাতে বা শিশুর ডায়াপার পরিবর্তন করতে মা ও শিশুদের জন্য রয়েছে আলাদা স্টলের ব্যবস্থা। নির্ধারিত ওই স্টলে গিয়ে মা তার শিশুকে দুধ পান করাতে বা শিশুর ডায়াপার পরিবর্তন করতে পারছেন। শিশুর ক্ষুধা পেলেই কেনাকাটার ফাঁকে মা খুঁজে নিচ্ছেন নির্ধারিত এই স্টলগুলো। শিশুর ক্ষুধা নিবারণ করে নিশ্চিন্তে মেলায় ঘোরাঘুরি বা কেনাকাটা করছেন শিশুর মা। মেলায় স্কয়ারের ব্রেস্ট ফিডিং অ্যান্ড ডায়াপার চেঞ্জিং কর্ণার নামক স্টলে কাজটি সম্ভব হচ্ছে। এবারের মেলায় স্কয়ারের দুটি স্টলে মা ও শিশুর জন্য একই সেবা দেয়া হচ্ছে। প্রতিদিন প্রায় ৩'শ ৫০ জন মা তার শিশুকে নিয়ে এখানে আসেন এবং ক্ষুধার্থ শিশুকে দুধ পান করান। ছুটির দিনে এর সংখ্যা বেড়ে ৫'শ ছাড়িয়ে যায় বলে জানিয়েছেন স্টলের দায়িত্বরত সমন্বয়কারী সোহেবুল।
তিনি আরো বলেন, বিনামূল্যে মা ও শিশুদের জন্য মাসব্যাপী এ মেলায় এ ধরনের সুযোগ রাখা হয়েছে। স্টলে যারা তালিকাভুক্ত হচ্ছেন তাদের বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে স্কয়ার সুপার মম।
এদিকে এসিআই প্রতিষ্ঠানের ওম্যান হেলথ কেয়ারে মহিলাদের জন্য বিনামূল্যে চিকিত্সার ব্যবস্থা রয়েছে। প্রতিদিন বিকাল ৩ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত মহিলাদের ফ্রি চিকিত্সা সেবা দেয়া হয়। স্টলে রাখা খাতায় যারা তালিকাভুক্ত হচ্ছেন তাদের একটি ফ্রিডম ফ্রি দেয়া হচ্ছে। এছাড়া যারা ক্রয় করার আগ্রহ প্রকাশ করছেন তাদের কাছে ফ্রিডম বিক্রিও করা হচ্ছে। বিক্রয়কর্মী জাকিয়া সুলতানা বলেন, মহিলারা এই উদ্যোগকে ভালোভাবে গ্রহন করছেন। প্রতিদিন প্রায় ২০০ জন স্টল থেকে বিনামূল্যে চিকিত্সা নিচ্ছেন।
এদিকে মেলায় নভো নরডিঙ্রে ফার্স্ট এইড নামক মিনি প্রঅভিলিয়নে বিনামূল্যে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করানো হচ্ছে। পাশাপাশি ডায়াবেটিস রোগীদের নানা পরামর্শ দিচ্ছেন দায়িত্বরত চিকিত্সক। প্রতিদিন প্রায় ১ হাজার রোগী এখান থেকে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করান বলে জানান ডা. মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, ডায়াবেটিস ছাড়াও অন্যান্য রোগেরও ফ্রি চিকিত্সা সেবা দেয়া হচ্ছে। এমারজেন্সী রোগীর জন্য রয়েছে এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা। 
রাজধানীর মিরপুর থেকে মেলায় এসে কেনাকাটা শেষে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করে বাসায় ফিরছিলেন আব্দুল মান্নান। তার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, মেলায় ফ্রি চিকিত্সা সেবা একটা ভালো উদ্যোগ। কেনাকাটাও হলো আর বিনামূল্যে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করানো হলো। এবার নি:চিন্তে বাসায় ফিরতে পারি। এক ঢিলে দুই পাখি বলতে পারেন। এছাড়া মেলায় রয়েছে সেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচীর আলাদা বুথ। যারা সেচ্ছায় রক্তদান করতে চান তারা এখানে রক্ত দিচ্ছেন। কোন রোগীর রক্তের প্রয়োজন হলে মেলার প্রচার মাইকে জানিয়ে দেয়া হয়। ইচ্ছুক রক্তদাতা বুথে গিয়ে রক্ত দান করেন।

শিশুকে নির্দিষ্ট সময় পরপর দুধ পান করানো, শিশুর নির্ধারিত খাবার খাওয়ানো বা শিশুর শরীরের কাপড় পরিবর্তন; কোনো মা নিশ্চয়ই এড়াতে পারেন না। আর সেজন্য কেনাকাটা বা ঘোরাঘুরির ইচ্ছে থাকলেও শিশুকে বাসায় রেখে মেলায় আসতে চান না অনেক মায়েরা। তবে এবারের মেলায় শিশুকে সাথে নিয়ে এসে ভোগান্তিতে পরতে হচ্ছে না তার মাকে। শিশুকে দুধ পান করাতে বা শিশুর ডায়াপার পরিবর্তন করতে মা ও শিশুদের জন্য রয়েছে আলাদা স্টলের ব্যবস্থা। নির্ধারিত ওই স্টলে গিয়ে মা তার শিশুকে দুধ পান করাতে বা শিশুর ডায়াপার পরিবর্তন করতে পারছেন। শিশুর ক্ষুধা পেলেই কেনাকাটার ফাঁকে মা খুঁজে নিচ্ছেন নির্ধারিত এই স্টলগুলো। শিশুর ক্ষুধা নিবারণ করে নিশ্চিন্তে মেলায় ঘোরাঘুরি বা কেনাকাটা করছেন শিশুর মা। মেলায় স্কয়ারের ব্রেস্ট ফিডিং অ্যান্ড ডায়াপার চেঞ্জিং কর্ণার নামক স্টলে কাজটি সম্ভব হচ্ছে। এবারের মেলায় স্কয়ারের দুটি স্টলে মা ও শিশুর জন্য একই সেবা দেয়া হচ্ছে। প্রতিদিন প্রায় ৩'শ ৫০ জন মা তার শিশুকে নিয়ে এখানে আসেন এবং ক্ষুধার্থ শিশুকে দুধ পান করান। ছুটির দিনে এর সংখ্যা বেড়ে ৫'শ ছাড়িয়ে যায় বলে জানিয়েছেন স্টলের দায়িত্বরত সমন্বয়কারী সোহেবুল।
তিনি আরো বলেন, বিনামূল্যে মা ও শিশুদের জন্য মাসব্যাপী এ মেলায় এ ধরনের সুযোগ রাখা হয়েছে। স্টলে যারা তালিকাভুক্ত হচ্ছেন তাদের বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে স্কয়ার সুপার মম।
এদিকে এসিআই প্রতিষ্ঠানের ওম্যান হেলথ কেয়ারে মহিলাদের জন্য বিনামূল্যে চিকিত্সার ব্যবস্থা রয়েছে। প্রতিদিন বিকাল ৩ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত মহিলাদের ফ্রি চিকিত্সা সেবা দেয়া হয়। স্টলে রাখা খাতায় যারা তালিকাভুক্ত হচ্ছেন তাদের একটি ফ্রিডম ফ্রি দেয়া হচ্ছে। এছাড়া যারা ক্রয় করার আগ্রহ প্রকাশ করছেন তাদের কাছে ফ্রিডম বিক্রিও করা হচ্ছে। বিক্রয়কর্মী জাকিয়া সুলতানা বলেন, মহিলারা এই উদ্যোগকে ভালোভাবে গ্রহন করছেন। প্রতিদিন প্রায় ২০০ জন স্টল থেকে বিনামূল্যে চিকিত্সা নিচ্ছেন।
এদিকে মেলায় নভো নরডিঙ্রে ফার্স্ট এইড নামক মিনি প্রঅভিলিয়নে বিনামূল্যে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করানো হচ্ছে। পাশাপাশি ডায়াবেটিস রোগীদের নানা পরামর্শ দিচ্ছেন দায়িত্বরত চিকিত্সক। প্রতিদিন প্রায় ১ হাজার রোগী এখান থেকে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করান বলে জানান ডা. মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, ডায়াবেটিস ছাড়াও অন্যান্য রোগেরও ফ্রি চিকিত্সা সেবা দেয়া হচ্ছে। এমারজেন্সী রোগীর জন্য রয়েছে এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা। 
রাজধানীর মিরপুর থেকে মেলায় এসে কেনাকাটা শেষে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করে বাসায় ফিরছিলেন আব্দুল মান্নান। তার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, মেলায় ফ্রি চিকিত্সা সেবা একটা ভালো উদ্যোগ। কেনাকাটাও হলো আর বিনামূল্যে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করানো হলো। এবার নি:চিন্তে বাসায় ফিরতে পারি। এক ঢিলে দুই পাখি বলতে পারেন। এছাড়া মেলায় রয়েছে সেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচীর আলাদা বুথ। যারা সেচ্ছায় রক্তদান করতে চান তারা এখানে রক্ত দিচ্ছেন। কোন রোগীর রক্তের প্রয়োজন হলে মেলার প্রচার মাইকে জানিয়ে দেয়া হয়। ইচ্ছুক রক্তদাতা বুথে গিয়ে রক্ত দান করেন।

Comments

comments