ব্রেকিং নিউজ

পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশীদের জন্য বিশেষ বন্দীশিবির

বিডিএক্সপ্রেসঃ অবৈধভাবে ভারতে আসার দায়ে ধরা পড়া যেসব বাংলাদেশী বন্দীর সাজার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে, কিন্তু এখনও দেশে ফিরতে পারেন নি, তাঁদের জন্য একটা বিশেষ বন্দী শিবির খুলছে পশ্চিমবঙ্গ।

কলকাতা থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দূরে কল্যানীর উপসংশোধনাগারটি বন্ধ করে দিয়ে এই বিশেষ বন্দী শিবির খোলা হবে।

রাজ্যের কারা বিভাগের এক শীর্ষ কর্মকর্তা বিবিসি বাংলাকে এই তথ্য দিয়েছেন, যদিও আনুষ্ঠানিকভাবে এই পরিকল্পনার কথা জানায় নি রাজ্য সরকার।

যেসব বাংলাদেশী নাগরিক অবৈধভাবে ভারতে আসার জন্য গ্রেপ্তার হয়ে সাজা খেটেছেন অথচ তাঁদের পরিচয় সম্বন্ধে বাংলাদেশ থেকে নিশ্চয়তা পাওয়া যায় নি, সেরকম বন্দীদেরই এই শিবিরটিতে রাখা হবে। এধরনের বন্দীদের বলা হয় জান-খালাশ।

ওই শীর্ষ কর্তার কথায়, “এই মুহুর্তে প্রায় ৪০০ বাংলাদেশী নাগরিক রয়েছেন, যাঁরা সাজার মেয়াদ শেষ হওয়া সত্ত্বেও জেলে থাকতে বাধ্য হচ্ছেন। তবে সবাইকেই আমরা কল্যানীর এই শিবিরে এখনই জায়গা দিতে পারব না। আপাতত ১৫০ জন জান-খালাশ বন্দীকে এখানে আনা হবে।“

পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন কারাগারে নভেম্বর মাসের হিসাব অনুযায়ী প্রায় ৩২০০ জন বাংলাদেশী নাগরিক রয়েছেন।

ভারতের সুপ্রীম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী সাজার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়া কাউকে কারাগারে রাখা যাবে না, তাদের বিশেষ বন্দী শিবিরে রাখতে হবে।

“সেই নির্দেশ অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গে এই প্রথম বিশেষ বন্দী শিবির তৈরী হচ্ছে,” বলছিলেন কারা দপ্তরের ওই কর্তা।

Comments

comments